• শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ০২:৩৫ অপরাহ্ন
  • English Version
শিরোনাম:
শিবগঞ্জ বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় পতাকা উত্তোলণ বগুড়ায় শাইখ সিরাজের কৃষকের ঈদ আনন্দ অনুকরণে “আমাদের ঈদ আনন্দ” অনুষ্ঠিত গাবতলির আলোর সন্ধানী সমাজ কল্যান পরিষদের উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন শিবগঞ্জের দাপুটে মাদক সম্রাট সিজু আটক “বন্যার্তদের মাঝে হিরো আলমের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ” ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানালেন বন্ধু ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আরিফুল গাছ লাগিয়ে পরিবেশ রক্ষায় কাজ করছেন গাংনগরের তরুনরা করোনার মাঝেই জমে উঠেছে গাংনগর কুরবানীর হাট জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদ সাভার উপজেলা কমিটির পক্ষ থেকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ শিবগঞ্জের অর্জুনপুর সেতুর নির্মাণকাজ

করোনায় সম্মুখ যোদ্ধাদের কুমার বিশ্বজিতের ‘স্যালুট’

সংবাদ২৪ ডেস্ক / ১৪৮ দেখেছেন
আপডেট সোমবার, ১ জুন, ২০২০

লক্ষ্য কোটি তরুণ-তরুণীর প্রিয় কন্ঠশিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ। যিনি আধুনিক, ক্লাসিক্যাল ও লোকগীতিসহ সব ধরনের গানের এক উজ্জ্বল তারকা। তার গানে শ্রোতারা যেন একটু অন্যরকম আমেজ পায়। ‘তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে’, ‘তুমি রোজ বিকেলে’ কিংবা ‘যেখানে সীমান্ত তোমার’ এর মতো গান দিয়ে এখনও শ্রোতাদের হৃদয়ে চির সবুজ হয়ে আছেন।

আজ সোমবার (১ জুন) জনপ্রিয় এ গায়কের জন্মদিন। প্রথম প্রহর থেকেই ভক্ত অনুরাগীসহ সহকর্মীদের শুভেচ্ছা ও ভালোবাসায় সিক্ত হচ্ছেন তিনি। গানে গানে জীবনের ৫৬ বসন্ত পেরিয়ে পা রাখলেন ৫৭-তে। তবে নিজের জন্মদিনে কোন উচ্ছ্বাস নেই তাঁর মনে। দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বেশ চিন্তিত তিনি।

কুমার বিশ্বজিৎ বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ‘জন্মদিনে তো কোন আনন্দ থাকেনা সবই গৌণ হয়ে যায়। মানুষ এখন তাদের জীবন ও জীবিকা নিয়ে এত বেশি অনিশ্চয়তায় রয়েছে, সেখানে আর কোন আনন্দ থাকেনা আসলে। আর এখন তো সামাজিকতাই নেই। আর উপলক্ষ্যে যদি ফোনে ফোনে কোলাকুলি করতে হয় তাহলে ভালো লাগে না। সামনে এসে বুকে বুক মিলিয়ে কোলাকুলি করাটাতে আনন্দ খুঁজে পাই। কিন্তু এখন তো আর সেটা করতে পারছিনা। তবে সবাই উইশ করছে যে ভালো লাগছে অনেক।’

তিনি আরও বলেন, ‘করোনার এ ক্রান্তিকালে যারা সম্মুখ যোদ্ধা অর্থাৎ ডাক্তার,নার্স, আইনশৃঙ্খলা ও সামরিকবাহিনী, সাংবাদিক, পরিচ্ছন্নকর্মী, বিভিন্ন সংগঠন, স্বেচ্ছাসেবীসহ সবাইকে আমি বিনম্র শ্রদ্ধা জানাচ্ছি। আজকের এই দিনটাতে আমি তাদেরকে বিশেষভাবে বিনম্র শ্রদ্ধা, কৃতজ্ঞতা ও ভালোবাসা জানাই। কারণ তাঁরা সামনে থেকে যুদ্ধ করে যাচ্ছেন সবার হয়ে। এই মানবতার দিকে তাকিয়ে তাঁরা যে সম্মুখ যোদ্ধা হয়ে কাজ করে যাছেন এটা অনেক বড় একটা বিষয়। স্যালুট তাদের প্রতি।’

মন খারাপ করে এ সংগীত তারকা বলেন, ‘এত এত প্রিয়জন চলে যাচ্ছে যার কারণে আমার কিছুই ভালো লাগছে না। এখন আমরা সবাই অনিশ্চয়তার মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। আর এ সময়টা কতদিন থাকবে তা আমরা কেউ বলতে পারছিনা। অনেকের কাছে আমি হয়তো একটা সংখ্যা মাত্র, কিন্তু আমার পরিবারের কাছে আমি আমি বিশাল কিছু, একটা বটগাছ, একটা পৃথিবী। তাই আমাদের সবাইকেই সাবধানে থাকতে হবে। পৃথিবীর সবাই সুস্থ থাকুক, এই কামনা করি।’

লকডাউনের এই দিনগুলোতেও কুমার বিশ্বজিতের সার্বিক পরিকল্পনায় ও সুরে দুটি গান প্রকাশ হয়েছে। দুটি গানই লিখেছেন লিটন অধিকারী রিন্টু এবং সঙ্গীতায়োজন করেছেন কিশোর। দুটি গানের মধ্যে একটি হচ্ছে ‘লকডাউন’ এবং অন্যটি হচ্ছে ‘ঈদ আনন্দ’। এই গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন নিশীতা, ইমরান, লিজা ও কিশোর।

উল্লেখ্য, কুমার বিশ্বজিৎ ১৯৬৩ সালের ১ জুন চট্টগ্রামে জন্মগ্রহণ করেছিলেন। সেখানেই তার শৈশব কেটেছে। ‘তোরে পুতুলের মত করে সাজিয়ে’ গান দিয়ে উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্রাবস্থাতেই তিনি পেয়েছিলেন জনপ্রিয় গায়কের খ্যাতি। এরপর বহুদূর এগিয়ে এসেছেন। বাংলা আধুনিক কিংবা চলচ্চিত্রের গানে দীর্ঘ চার দশক ধরে কণ্ঠ দিচ্ছেন কুমার বিশ্বজিৎ। তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও জয় করেছেন তিনি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ