• শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০, ০২:৫৩ অপরাহ্ন
  • English Version
শিরোনাম:
বগুড়ায় শাইখ সিরাজের কৃষকের ঈদ আনন্দ অনুকরণে “আমাদের ঈদ আনন্দ” অনুষ্ঠিত গাবতলির আলোর সন্ধানী সমাজ কল্যান পরিষদের উদ্যোগে অসহায়দের মাঝে ঈদ সামগ্রী বিতরন শিবগঞ্জের দাপুটে মাদক সম্রাট সিজু আটক “বন্যার্তদের মাঝে হিরো আলমের ত্রাণসামগ্রী বিতরণ” ঈদুল আজহার শুভেচ্ছা জানালেন বন্ধু ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক আরিফুল গাছ লাগিয়ে পরিবেশ রক্ষায় কাজ করছেন গাংনগরের তরুনরা করোনার মাঝেই জমে উঠেছে গাংনগর কুরবানীর হাট জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদ সাভার উপজেলা কমিটির পক্ষ থেকে ঈদুল আযহার শুভেচ্ছা নির্ধারিত সময়ের আগেই শেষ শিবগঞ্জের অর্জুনপুর সেতুর নির্মাণকাজ করোনার মাঝেও অল্প বয়সে ছেলে-মেয়েদের বিয়ের ধুম
/ শিক্ষা ও সাহিত্য
কনকাঞ্জলি দেবী হুস করে উড়ে গিয়ে ছোট বউয়ের ঘরে ঢুকে দেখলেন ছোটো বউ হারটা পড়েই ভোঁশ ভোঁশ করে ঘুমোচ্ছে,অঞ্জলি দেবী কাছে গিয়ে মারলেন হারটায় এক টান… -“মরণ দশা! খোল শিগগিরি আরও পড়ুন
“মরণ দশা! আমার হয়েছে যতো জ্বালা! দেখো আজকের দিনেও বুড়োটার ঘুম ঠিকই আছে,একমাত্র বউটা যে গত হলো,সে দুঃখ কষ্ট বুড়োর আছে কিনা সেটাই তো দেখতে এলাম। মরণ দশা! বেঁচে থাকতেও
ড.রহমান এখন তার চেম্বারে বসে আছেন। পরিবারের ভেতর কেউ ডক্টর হলেই চেনাজানা সূত্রে অনেকেই আসে চিকিৎসা করাতে। এটা শুধু ডক্টরদের জন্যই নয়। আর্টিষ্ট,কবি বা ফটোগ্রাফারের ক্ষেত্রেও তাই। ধরুন আপনার চেনাজানা
হাসিব অনেকক্ষণ অপেক্ষা করে উঠে দাড়ালো। দুইটা টিউশানি আজ মিস হয়েছে তার। এই সময়টা কিছু একটা করে পার করা উচিৎ। মার্কেটে গেলে মন্দ হয়না। নানান রকম মানুষের আনাগোনা হয় মার্কেটে।
(সময়টা মধ্যরাত) নদীর পাশে জেলেরা মাছ ধরার জন্য টং পেতে রেখেছে,সেখানেই মুখোমুখি বসে আছে দুই তরুণ তরুনি। -ভাগ্য যে কখন কার সাথে কি খেলা খেলে তা বোঝা বড়ই মুসকিল। একটা
আজকে রাতে খুব কড়াভাবে নওসিন কে পাহারা দেওয়া হবে। নওসিনের নানি জাগবেন প্রথম একটা পর্যন্ত। তারপর উনি ঘুমোনোর আগে রাজিয়া বেগমকে জাগিয়ে দিবেন। উনি ফজর পর্যন্ত জাগবেন। কোনো সমস্যা হলেই
পর্বঃ০২ ———————————– নওসিনের ছোটবেলার সমস্যাটা আবার মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। নাক-মুখ দিয়ে রক্ত পড়া শুরু হয়েছে। তার মা বুঝতে পেরেছেন মেয়ে তার চাঁদনী পসরের চাঁদ দেখেছে। সমস্যাটা শুরু হয়েছিলো তার জন্মের
লেখক: সারোয়ার হোসেন(হাবীব) পর্বঃ০১ ড.রহমান এর আজ খুব রাগ হচ্ছে। তার পছন্দের হাতঘড়িটা কাল থেকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। সকালে কিছুই খাওয়া হয়নি। তারমধ্যে রুপাকে সে চা আনতে পাঠিয়েছে অনেক্ষণ