• বুধবার, ২১ অক্টোবর ২০২০, ০৯:৫৭ অপরাহ্ন
  • English Version
Notice :
***শর্ত সাপেক্ষে সাংবাদিক নিয়োগ দিচ্ছে সংবাদ২৪**আগ্রহীরা সিভি পাঠান এই ইমেইলেঃinfo@shangbad24.com

হৃদরোগ ঝুঁকিতে বাংলাদেশের ৯৭ ভাগ মানুষ

সংবাদ২৪ ডেস্ক
আপডেট রবিবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০

শিরোনাম দেখে অবাক হচ্ছেন? না অবাক হবার কিছু নেই। কারন,  দেশের ৯৭ ভাগ মানুষ কোনো না কোনোভাবে হৃদরোগ ঝুঁকিতে রয়েছে। হৃদরোগে মৃত্যুর কারণ ৯টি রিসক ফ্যাক্টর। যদিও ধূমপান, অ্যালকোহল, খাদ্যে ট্রান্সফাট গ্রহণের মতো রিসক ফ্যাক্টরগুলো প্রতিরোধযোগ্য। সচেতন জীবনযাপনের মাধ্যমে এগুলো এড়িয়ে চলা সম্ভব।

বিশ্ব হার্ট দিবস উদযাপন উপলক্ষে শনিবার আয়োজিত এক ওয়েবিনারে এসব তথ্য জানানো হয়।

সোসাইটি অব কার্ডিওভাসকুলার প্রিভেনশনের সভাপতি অধ্যাপক ডা. মো. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এবং সেক্রেটারি ডা. এসএম হাবিব উল্লাহ সেলিমের সঞ্চালনায় ওয়েবিনারে সংযুক্ত হয়ে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ কার্ডিয়াক সোসাইটির প্রেসিডেন্ট অধ্যাপক ডা. একেএম মহিবুল্লাহ, বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য ড. মোহাম্মদ আবদুল আলিম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের লাইন ডিরেক্টর (এনসিডিসি) ডা. হাবিবুর রহমান, লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের কনসালটেন্ট ডা. মনজুর শওকত, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মাহফুজুল হক, চ্যানেল আইয়ের ডা. রাইয়াতুন তেহরীন প্রমুখ। ওয়েবিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের হৃদরোগ বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. শিশির কুমার বসাক। তিনি বলেন, বিশ্বে প্রতি তিনটি মৃত্যুর একটি হৃদরোগে ঘটে। দেশে অসংক্রামক রোগের মধ্যে হৃদরোগ অন্যতম। দেশে মোট মৃত্যুর ৬৭ ভাগই ঘটে অসংক্রামক রোগে। এর মধ্যে ৩০ ভাগের কারণ হৃদরোগ।


আরো সংবাদ


ডা. শিশির কুমার বসাক ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অব প্রিভেন্টিভ অ্যান্ড সোশ্যাল মেডিসিন (নিপসম) পরিচালিত অপর এক গবেষণায় দেখা গেছে, দেশের ৯৭ ভাগ মানুষ কোনো কোনোভাবে হৃদরোগ ঝুঁকিতে রয়েছে।

পৃথিবীর ৫২টি দেশে পরিচালিত ‘ইন্ট্রা হার্ট স্টাডি’ গবেষণায় দেখা গেছে- ৯টি রিসক ফ্যাক্টর হৃদরোগে মৃত্যুর প্রধান কারণ। যদিও ধূমপান, অ্যালকোহল পান, খাদ্যে ট্রান্সফাট গ্রহণের মতো এসব রিসক ফ্যাক্টর প্রতিরোধযোগ্য। সচেতন জীবনযাপনের মাধ্যমে এগুলো এড়িয়ে চলা সম্ভব।

ডা. শিশির কুমার বসাক আরও বলেন, বর্তমানে সারাবিশ্বে কোভিড-১৯ মহামারীতে অনেক মৃত্যুর ঘটনা ঘটছে। এক্ষেত্রে যাদের হৃদরোগ রয়েছে তাদের মৃত্যুঝুঁকি অনেক বেশি। তাই কোভিডে মৃত্যুঝুঁকি কমাতে হৃদরোগ নিয়ন্ত্রণ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

ওয়েবিনারে আরও বক্তব্য রাখেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (বিশ্ব স্বাস্থ্য অনুবিভাগ) কাজী জেবুননেসা বেগম। করোনা নিয়ন্ত্রণে সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোভিড নিয়ন্ত্রণে পৃথিবীর অনেক উন্নত দেশের তুলনায় আমরা অনেক বেশি এগিয়ে।

একটি পিসিআর মেশিন দিয়ে শুরু করে এখন আমরা শতাধিক মেশিনের মাধ্যমে রোগ শনাক্ত করতে পারছি। এভাবেই আমরা অন্য সব রোগের ক্ষেত্রে সাফল্য অর্জন করব।

এ ধরনের একটি সময় উপযোগী আয়োজন করার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়ে যুগান্তরের সম্পাদক সাইফুল আলম বলেন, অসংক্রামক রোগ নিয়ন্ত্রণে আমাদের আরও বেশি সচেতন হতে হবে। জনসচেতনতা বাড়ানোর পাশাপাশি সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে এ সংক্রান্ত উন্নত চিকিৎসা ব্যবস্থা করতে হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ